/ উন্নয়ন পরিকল্পনা ও ইতিবাচক

ঝিনাইগাতীর রাংটিয়া-জামালপুর রেলপথ ৭৮ বছর যাবৎ ফাইলবন্দী

হারুন অর রশিদ দুদু - শেরপুর সদর প্রতিনিধি

আপডেট: 01-04-2021 17:19:25

দীর্ঘ ৭৮ বছর পরেও ঝিনাইগাতীর রাংটিয়া-জামালপুর রেলপথ লাইন বাস্তবায়িত হয়নি। এ প্রকল্পের ফাইলটি লাল ফিতায় বন্দী হয়ে রয়েছে। ২৪ মাইল দীর্ঘ ঝিনাইগাতীর রাংটিয়া-জামালপুর রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে এলাকাবাসীর যাতায়াত হতো সুবিধা মতো এতে ব্যায়ও আনেকটা কমে যেত। যাত্রীরা বিভিন্ন সময় বাস সিএনজি মালিক ও ড্রাইভারদের জিম্মি হয়ে পড়ে। জানা যায়, প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর ঝিনাইগাতী উপজেলার গারো পাহাড়ের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের জন্য রেলপথ প্রকল্পটি হাতে নেয়া হয়। ১৯৪৩ সাল থেকে অদ্যবধী প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্যে কয়েক দফা উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল কিন্তু অদৃশ্য কারণে বারবার প্রকল্পটি ফাইলবন্দী হয়ে থাকে। কয়েকদফায় বাজেটে টাকাও বরাদ্দ করা হয়। কিন্তু তা বাস্তবে আজও হয়নি। ১৯৪৩ সনে তৎকালিন ব্রিটিশ সরকার ঝিনাইগাতীর রাংটিয়া-শেরপুর-জামালপুর রেলপথ স্থাপনের ব্যাপক পরিকল্পনা গ্রহণ করে। এ পরিকল্পনা অনুযায়ী বিভিন্ন স্থানে ৭টি ষ্টেশন- বিশিষ্ট রেলপথের জরীপও করা হয়। প্রকাশ, ১৯৭৮-১৯৭৯ সনের অর্থ- বছরের বাজেটে ঝিনাইগাতীর রাংটিয়া-জামালপুর রেলপথ নির্মাণের জন্যে ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ করা হয়। জরিপ কাজটি না হওয়ায় পুনরায় ১৯৭৯-১৯৮০ অর্থ বছরে জরীপ কাজ সম্পন্ন করার জন্য বাজেটে বরাদ্দ ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু বাস্তাবে আজোও হয়নি। তৎকালিন ব্রিটিশ সরকার গারো পাহাড়ে ভরপুর প্রাকৃতিক সম্পদ দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতের সুবিধার্থে প্রকল্পটি হাতে নেয়। ইতি মধ্যেই শেরপুর বাসী রেলপথ নির্মাণের জন্য সরকারের কাছে দাবি করে আসছে। রেলপথটি দ্রুত বাস্তবায়িত হলে শেরপুর বাসীর যাতায়াত সহ গারো পাহাড়ের গজনী পর্যটন এলাকায় আরোও উন্নয়ন সম্ভব হবে বলে অভিজ্ঞ মহলের ধারণা।

Tag

Comments (0)

Comments