/ উন্নয়ন পরিকল্পনা ও ইতিবাচক

কুয়াকাটা পৌর মেয়রের নিবার্চনী ওয়াদার কাজ শুরুর মধ্যে দিয়ে আলোকিত হতে যাচ্ছে পর্যটন নগরী

MD RASHEL KABIR MURAD - কলাপাড়া প্রতিনিধি

আপডেট: 11-04-2021 17:44:01

পযটনকেন্দ্র কুয়াকাটা পৌরসভায় নিবার্চিত হওয়ার তিন মাসের মধ্যেই  নিবার্চনী ওয়াদা রাখতে কাজ শুরু করেছেন কুয়াকাটা পৌর মেয়র আনোয়ার হওলাদার। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত মাঠ, ঘাট, ড্রেনেজ, ডোবা-নালা পরিস্কার, পরিছন্ন কর্মীর খোজ নেয়া, চলমান কাজ তদারকি, বিপদে পড়া মানুষের খোজ খবর নেয়াসহ বিভিন্ন উন্নয়ন পরিকল্পনা ও দলীয় কাজ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। যা দেখে এলাকাবাসী ও আগত পযর্টকরা খুব খুশী। 


নিবার্চিত হওয়ার পর শপথের আগে কুয়াকাটা সৈকতে পড়ে থাকা এক যুগ আগের এলজিইউডি ভবনের বড় বড় কংক্রিট, যাতে প্রায় সময়ই পযর্টকরা গোসলের সময় আহত হতো। পরিত্যক্ত সেই কংক্রিটগুলো নিজ অর্থায়নে প্রায় ২ লাখ টাকা ব্যায় করে সরিয়ে ফেলেন, এতে এলাকাবাসী ও পযর্টকরা নব-নির্বাচিত মেয়রের কাছে কৃতজ্ঞ। গত ১৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষীকিতে ১০দিন ব্যপী সৈকতে পর্যটকদের বিনোদনে জন্য দেশর বিভিন্ন শিল্পী ও কুয়াকাটা শিল্পীগোষ্ঠী দিয়ে চমকপ্রদ অনুষ্ঠান করে ব্যাপক সাড়া ফেলেছেন জনগনের মাঝে। কুয়াকাটার বেড়ীবাধে বাহিরে ভুইয়া বাড়ীর বিটিশ আমলের পড়ে থাকা বিশাল ডোবাকে পরিছন্ন করে সৌন্দয্যবর্ধনে লেক করার মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন যাতে দেশ-বিদেশেররা পযর্টকরা ব্যাপক বিনোদন পাবে বলে সকলে ধরনা করছেন। তাতে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা ব্যায় হবে বলে ধারণা করছেন পৌর কতৃপক্ষ। র্দীঘদিন পড়ে থাকা ঐ ডোবায় মেয়র যখন প্রাথমিক ভাবে সফল হয়েছেন সে বাকি কাজটা পরিকল্পীত ভাবে সফল হবে বলে সহকর্মীরা ধারণা করছেন। 


কুয়াকাটা ফয়েজ মিয়া র্ফাম এন্ড ফার্মস লি:-এর সাবেক কেয়ার টেকার নারিকেল বাগানের কুদুস মিয়া (৫৫)এ প্রতিবেদককে বলেন, পৌর মেয়র আনোয়ার হাওলাদার আমাগো এই যে কত বড় একটি কাজ করছেন যা আমি ১২ বছর চাকরি করছি পরিনি, বাকি কাজও তিনি করতে পারবে বলে আশা করেন। 


স্থানীয় সমাজ কর্মী তরুন ক্লাবের সভাপতি ওয়াহিদ ইব্রাহিম বলেন, কুয়াকাটা পৌর মেয়র প্রথমবারের মতো নিবার্চিক হওয়ার শুরু থেকেই যেসব কাজ করতেছে তার ধরাবাহিকতা যদি অব্যহত থাকে তাহলে আগামি ৫ বছরে আমরা গব করে বলতে পারবো কুয়াকাটা একটি আধুনিক পর্যটন কেন্দ্র । নিবার্চনে যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো সেসব কথা তিনি ধীরে ধীরে রাখছেন। 


কুয়াকাটা ট্যুরিজম ম্যানেজমেন্ট এ্যাসোসিয়েশন (কুটুম‘র) সভাপতি ও কুয়াকাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি নাসির উদ্দিন বিপ্লব জানান, মাত্র তিন মাসেই পৌর মেয়র তার যে দ্বায়ীত্ব নিয়ে কাজ শুরু করছে এ ভাবে চলতে থাকলে এবং সবাই এই কাজে সহযোগীতা করেন তাহলে কুয়াকাটা আধুনিক মডেল পৌরসভায় রূপান্তরিত হবে । 


কুয়াকাটা পৌর মেয়র আনোয়ার হাওলাদার জানান, ভোটের আগে জনগনকে কথা দিয়ে ছিলাম নিবার্চিত হলে জনগনের জন্য নতুন নতুন কাজ করব। জনগন ও এলাকার উন্নয়নের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করবো এবং করছি বাকি দিনগুলিও করে যাবো, জনগন সহয়তা করলে করছি আগামি ৫ বছর পরিকল্পিতভাবে কাজ করে স্বপ্নের সিড়িতে দাড়িয়ে নতুন কিছু সৃষ্টি করতে চাই যাতে আগত পর্যটক ও পৌর জনগন যেন কাজের মাঝে ভবিষ্যতে স্মরণ রাখে। 


Comments (0)

Comments